• ঢাকা
  • রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১

Advertise your products here

  1. আইন ও আদালত

হিরো আলমের ওপর হামলার ঘটনায় আরও একজন রিমান্ডে


দৈনিক পুনরুত্থান ; প্রকাশিত: শুক্রবার, ২১ জুলাই, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ০৮:০৬ পিএম
হিরো আলমের ওপর হামলার ঘটনায় আরও একজন রিমান্ডে
ফাইল ফুটেজ

আশরাফুল হোসেন আলম ঢাকা-১৭ আসনের উপ-নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী ওরফে হিরো আলমের ওপর হামলার ঘটনায় বনানী থানায় দায়ের করা মামলায় এক আসামির তিন দিনের গ্রেপ্তার মো. মাসুদ নামের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

 আদালতে হাজির করে পুলিশ শুক্রবার (২১ জুলাই) তাকে।  সাত দিনের রিমান্ডে নিতে এরপর মামলার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা বনানী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) নূর উদ্দিন। শুনানি শেষে তার তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট রাজেশ চৌধুরীর আদালত। আদালতে বনানী থানার সাধারণ নিবন্ধন শাখার বিষয়টি জানিয়েছেন কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক জালাল উদ্দীন।

এর আগে উপ-নির্বাচনের দিন সোমবার (১৭ জুলাই) বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে বনানী বিদ্যানিকেতন স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রের বাইরে একদল লোক হিরো আলমকে মারধর করেন। মারধরের হাত থেকে বাঁচতে হিরো আলমকে দৌড়ে পালিয়ে যেতে দেখা গেছে। পরে তিনি রামপুরার বেটার লাইফ হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে বাসায় ফেরেন। এ ঘটনায় অজ্ঞাতপরিচয় ১৫/২০ জনকে আসামি করে বনানী থানায় মামলা করেন হিরো আলমের ব্যক্তিগত সহকারী মো. সুজন রহমান শুভ (২৫)।

আরও পড়ুন>> আমাদের নিয়মে হবে আমাদের নির্বাচন : ওবায়দুল কাদের

এজাহারে বাদী অভিযোগ করেন, সকাল থেকে ঢাকা-১৭ আসনের উপ-নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শুরুর পর পরিদর্শন করতে থাকেন হিরো আলম বিভিন্ন কেন্দ্র। বনানী বিদ্যানিকেতন স্কুল অ্যান্ড কলেজে কেন্দ্র পরে তিনি বিকেল সাড়ে ৩টায় পরিদর্শন করতে যান। ৫/৬ সহযোগীসহ হিরো আলম কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে বের হয়ে আসার সময় অজ্ঞাতপরিচয় ১৫/২০ জন গতিরোধ করে করতে থাকেন বিভিন্ন ধরনের গালাগাল। হত্যার উদ্দেশ্যে একপর্যায়ে আসামিরা হিরো আলমকে আক্রমণ করে  মারতে থাকেন এলোপাতাড়ি কিলঘুষি।

মারধরের একপর্যায়ে তাদের মধ্যে থেকে অজ্ঞাতপরিচয় একজন হত্যার উদ্দেশ্যে হিরো আলমের কলার চেপে ধরে শ্বাসরোধ করার চেষ্টা করেন। এর মধ্যে আরেকজন এসে হিরো আলমের তলপেটে লাথি মারলে তিনি রাস্তায় পড়ে যান।বাদী এজাহারে আরও অভিযোগ করেন, হিরো আলম রাস্তায় পড়ে যাওয়ার পর বাকি আসামিরা তাকে এলোপাতাড়ি কিলঘুষি ও লাথি মেরে শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম করেন এবং টানাহেঁচড়া করেন। 

 

পুনরুত্থান/সালেম/সাকিব/এসআর

দৈনিক পুনরুত্থান / স্টাফ রিপোর্টার

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন