• ঢাকা
  • শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

Advertise your products here

  1. শিক্ষা

৪৮ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে একজনও পাস করতে পারেনি


দৈনিক পুনরুত্থান ; প্রকাশিত: শুক্রবার, ২৮ জুলাই, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ০২:০৬ পিএম
৪৮_শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে_একজনও_পাস_করতে_পারেনি
ফাইল ফুটেজ

মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমান চলতি বছরের পরীক্ষায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সংখ্যা কিছুটা কমেছে শূন্য পাস করা ।

এবার ৪৮টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কোনো শিক্ষার্থী পাস করতে পারেনি। গত বছর এ সংখ্যা ছিল ৫০টি। অন্যদিকে, শতভাগ পাস করা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সংখ্যা কমেছে। এবার মোট ২ হাজার ৩৫৪টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সব শিক্ষার্থী পাস করেছে। গত বছর এ সংখ্যা ছিল ২ হাজার ৯৭৫টি। এ বছর গড় পাসের হার ৮০ দশমিক ৩৯ শতাংশ।

তবে দেশের ৯টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ডের গড় পাসের হার ৮০ দশমিক ৯৪ শতাংশ। আর মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডে গড় পাসের হার ৭৪ দশমিক ৭০ শতাংশ এবং কারিগরি শিক্ষাবোর্ডে পাসের হার ৮৬ দশমিক ৩৫ শতাংশ।

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে শুক্রবার (২৮ জুলাই) রাজধানীর সেগুনবাগিচায় সংবাদ সম্মেলন করে ফলাফলের বিস্তারিত শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এসব তথ্য তুলে ধরেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে এর আগে সকালে গণভবনে ফলাফলের কপি হস্তান্তর করেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। সারাদেশে একযোগে বেলা সাড়ে ১০টার দিকে প্রধানমন্ত্রী এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল ঘোষণা করেন। শিক্ষাবোর্ডগুলোর চেয়ারম্যানরা এ সময় তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন>> এসএসসি ও সমমানে গড় পাসের হার ৮০.৩৯ শতাংশ

গত ৩০ এপ্রিল এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হয়। সময়সূচি অনুযায়ী, দেশের ৯টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ডের অধীন এসএসসি এবং কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের অধীন এসএসসি ও দাখিলের (ভোকেশনাল) লিখিত পরীক্ষা শেষ হওয়ার কথা ছিল ২৩ মে। আর মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীন দাখিলের লিখিত পরীক্ষা শেষ হওয়ার কথা ছিল ২৫ মে। কিন্তু ঘূর্ণিঝড় মোখার কারণে একাধিক বিষয়ের পরীক্ষা স্থগিত হওয়ায় পরীক্ষা শেষ হওয়ার তারিখও কয়েকদিন পিছিয়ে যায়।

এবার এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় মোট ২০ লাখ ৭২ হাজার ১৬৩ জন শিক্ষার্থী অংশ নেয়। এর মধ্যে ছাত্র ১০ লাখ ২১ হাজার ১৯৭ জন এবং ছাত্রী ১০ লাখ ৫০ হাজার ৯৬৬ জন। ৯টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ডসহ ১১টি শিক্ষাবোর্ডের অধীনে ২৯ হাজার ৭৯৮ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা তিন হাজার ৮১০টি কেন্দ্রে এবারের পরীক্ষায় অংশ নেয়।

 

পুনরুত্থান/সালেম/সাকিব/এসআর 

দৈনিক পুনরুত্থান / স্টাফ রিপোর্টার

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন